জমির রেকর্ড যাচাই করুন অনলাইনের মাধ্যমে।

বিভিন্ন সময় আমাদের জমির রেকর্ড যাচাই করার প্রয়োজন হয়। আগে আমাদের জমি রেকর্ড যাচাই করতে অবশ্যই ভূমি অফিসে যেতে হতো। কিন্তু এখন আর ভূমি অফিসে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। ঘরে বসে ১ মিনিটেই করতে পারবেন অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই। চলুন জেনে নেই অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই বা জমির রেকর্ড যাচাই করুন অনলাইনের মাধ্যমে।

অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই করতে কি কি লাগে?

আমরা যখন অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই করতে যাবো। তখন আমাদের নিকট বেশ কিছু তথ্যের প্রয়োজন হবে। তাই এগুলো আগে থেকেই জানা থাকতে হবে। যে তথ্য গুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার জমির রেকর্ড খুঁজে পাবেন। তথ্য গুলো হলো-

  1. আপনার ব্যক্তিগত ঠিকানা। যেমন-বিভাগ, জেলা, উপজেলা, মৌজা ইত্যাদি।
  2. জমির তথ্য। যেমন- খতিয়ান নম্বর, দাগ নম্বর, মালিকের নাম, ইত্যাদি।

আপাতত আপনার নিকট যদি উপরের এই তথ্য গুলো থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই অনলাইন থেকে আপনার জমির রেকর্ড যাচাই করতে পারবেন।

অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই।

ভূমি জরিপ হওয়ার পর জমির মালিকানা প্রমাণের জন্য ভূমি মালিকদের যে অনুলিপি বা দলিল প্রদান করা হয় তাকে জমির রেকর্ড,খতিয়ান বা পর্চা বলা হয়।

উক্ত রেকর্ড,খতিয়ান বা পর্চা আপনি অনলাইনের মাধ্যমে যাচাই করতে পারেন। আপনি চাইলে পর্চা বা খতিয়ানের সার্টিফাইট কপির জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং ফ্রিতে অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

অনলাইন ৪০ টাকা ফি এবং হোম ডেলিভারির জন্য ৫০ টাকাসহ সর্বমোট ৯০ টাকা ব্যয় করে একটি পর্চার সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করতে পারেন। আবেদন করতে eporcha.gov.bd/khatian এই লিংকে যান।

জমির রেকর্ড যাচাই করার নিয়ম

অনলাইনে জমির রেকর্ড বা খতিয়ান যাচাই করার জন্য আপনাকে পর্যায়ক্রমে কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে হবে। নিম্মে এই ধাপ গুলো ছবি সহ দেখানো হলো-

১ম ধাপঃ ভূমি মন্ত্রনালয়ের ওয়েবসাইটে প্রবেশ।

অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই করার জন্য প্রথমেই আপনাকে ভূমি মন্ত্রনালয়ের ওয়েবসাইট eporcha.gov.bd/khatian এই ঠিকানায় প্রবেশ করতে হবে। উক্ত ঠিকানায় প্রবেশ করার পর আপনাকে নিম্মের পেইজে নিয়ে যাওয়া হবে।

কিভাবে জমির রেকর্ড যাচাই করতে হয়

২য় ধাপঃ ঠিকানা ও জমির তথ্য পূরণ।

উপরের পেইজে প্রবেশের পর প্রথমে আপনার বিভাগ, জেলা, উপজেলা সিলেক্ট করুন। অতঃপর খতিয়ানের ধরন সিলেক্ট করুন অর্থাৎ আপনি কোন ধরনের রেকর্ড যাচাই করতে চান তা সিলেক্ট করুন। যেমন, সি.এস,এস.এ,আর.এস,বি.এস, বি.আর.এস, দিয়ারা বা পেটি যেকোন একটি সিলেক্ট করুন।

এরপর আপনার মৌজা সিলেক্ট করুন। অর্থাৎ কোন মৌজায় আপনার জমি তা নির্ধারণ করুন। সবশেষে খতিয়ানের তালিকা কলামের উপরের দান দিকে খুজুন বাটনে ক্লিক করলেই নিচের পেইজের মতো আপনার রেকর্ড বা খতিয়ানের তথ্য চলে আসবে।জমির রেকর্ড যাচাই।

৩য় ধাপঃ জমির রেকর্ড যাচাই।

উপরের পেইজের খতিয়ানের তালিকার খুজুন বাটনে ক্লিক করলেই উক্ত মৌজার সব গুলো মালিকের নাম ও খতিয়ান নম্বর চলে আসবে। এই তালিকা থেকে আপনার নির্ধারিত মালিকের নামের উপর ডাবল ক্লিক করলেই নিচের পেইজটি চলে আসবে। জমির রেকর্ড যাচাই

উপরের পেইজে আপনার ক্ষতিয়ান নং এবং দাগ নং থাকবে। অতঃপর নিচের দিকে বাম পাশের বিস্তারিত বাটনে ক্লিক করে আপনি নিচের মতো মালিকের নামসহ বিস্তারিত দেখতে পাবেন।

জমির রেকর্ড যাচাই

এই পেইজের মাধ্যমে আপনি দেখতে পারবেন খতিয়ান নম্বর, দাগ নম্বর এবং মালিক বা দখলদারদের নামের তালিকা। এভাবে আপনার জমির রেকর্ড যাচাই সম্পন্ন হবে।

এবার যদি আপনি আপনার জমির খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে উপরের পেইজের নিচের ডান দিকে খতিয়ান আবেদন বাটনে ক্লিক করে নিচের নিয়মানুযায়ী করতে হবে।

জমির সার্টিফাইড কপি কিভাবে পাবেন?

যদি রেকর্ড বা খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে উপরের পেইজের নিচের ডান দিকে খতিয়ান আবেদন বাটনে ক্লিক করলেই নিচের আবেদন ফরমটি চলে আসবে।

image

এই আবেদন ফরমটি যথাযথভাবে পূরন করে ফি পরিশোধ করুন। এর পর আপনি রেকর্ডের সার্টিফাইড কপি সরাসরি না ডাক যোগে নিবেন তা নির্ধারণ করুন। যদি ডাকযোগে পেত চান তাহলে নির্ধারিত ঠিকানা অনুযায়ী চলে যাবে। এভাবে আপনার খতিয়ানের বা রেকর্ডের অনুলিপি সংগ্রহ করুন।

শেষ কথা

উপরের লেখাটি আপনি সম্পূর্ণ পড়লে খুব সহজেই ঘরে বসে অল্প সময়ে অনলাইনে জমির রেকর্ড যাচাই করতে পারবেন।

About Author

AMINUL ISLAM

মোঃ আমিনুল ইসলাম। পেশায় একজন ব্যাংকার। চাকরির পাশাপাশি লেখা লেখির অভ্যাস থেকে ব্লগিং করা। এই ব্লগে বিভন্ন প্রযুক্তি , সরকারি সেবা, ব্যাংকিং, আইন ও নিয়ম কানুন, এবং ইসলামিক সংস্কৃতি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য শেয়ার করেছি।

2 thoughts on “জমির রেকর্ড যাচাই করুন অনলাইনের মাধ্যমে।”

  1. কোনো ভুমির মালিকের ওয়ারিশ কিভাবে জানতে পারবে – এই মালিকের ভুমীর কতটুকু বিক্রি হয়েছে, কতটুকু বাকি আছে?

    Reply
    • দাগ নম্বর ও খতিয়ান নম্বর এবং মৌজা নাম নিয়ে স্থানীয় ভূমী অফিসে গিয়ে সেখানের ভূমি কর্মকর্তার নিকট ্বলিয়াম বহি চেক করার আবেদন করলেই জানতে পারবেন যে, ঐ জমির কতটুকু বিক্রি হয়েছে এবং কতটুকু বাকী আছে। এই জন্য তেমন কোন ঝামেলা নেই। শুধু সাহস করে ভূমি অফিসে গেলেই হবে।

      Reply

Leave a Comment